রাজনগরে ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা। আইসিটি নিউজ

অপরাধ ও দুর্নীতি

আইসিটি নিউজ: শেখ সাহেদ মিয়া মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার পাঁচগাও ইউনিয়নের ধুলিজুরা গ্রামের আকলের বাজারে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী গেদন মিয়া নামে এক ব্যক্তিকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার এর প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত।
 মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্তিত ছিলেন  আকল বাজারেরর সকল ব্যবসায়ীবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় এলাকাবাসী।
আকল বাজার ব্যবসায়ী  কমিটির সদস্য আব্দুল করিম লাল মিয়ার সভাপতিত্বে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন আকল বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সভাপতি আব্দুর রব, বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য জাহিদুল ইসলাম, অরবিন্দু দাশ, দিরেন্দ্র দাশ,এছাড়াও স্থানীয় এলাকা বাসীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন আব্দুল বাছিত, দেওয়ান আক্তারুজ্জামান,পারভেজ মিয়া, ও সাজনা বেগম,এবং ১ নং ওয়ার্ডেন মেম্বার জাহাঙ্গীর মিয়া প্রমুখ।
বক্তারা বলেন গত ১৫ নভেম্বর বিকেলে আকল বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী গেদন মিয়ার দোকানে পরিকল্পিত ভাবে কে বা কাহারা কিছু জাল টাকা ও ২০ পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট রেখে যায় দোকানের টেবিলের নিছে, তখন দোকান মালিক গেদন মিয়া ছিলেন শহরে।
দোকানে রেখে গিয়েছিলেন উনারি ভাতিজা রিদয় মিয়া কে। রিদয় মিয়া যখন দোকান জারু দিতে লাগলো তখনই টেবিলের নিছে পরিত্যক্ত অবস্থায় কিছু টাকা ও পলিথিন দিয়ে মোড়ানো পুতলা দেখতে পায়।  সেগুলো দেখা মাত্রই রিদয়ের চাচা দোকান মালিক গেদন মিয়াকে বিষয় টি জানায়।  গেদন মিয়া বিষয় টি জানার পর সাথে সাথে রাজনগর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাজাহান মিয়া এবং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলাল মিয়া ও পাঁচগাও ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আজাদ মিয়া ও অরবিন্দু সহ রাজনগর থানা পুলিশ কে ফোন দিয়ে বিষয়টি অবগত করেন। যে তার দোকানে কে বা কাহারা এক বান্ডিল টাকা ও পলিথিনে মোড়ানো পুতলা রেখে গিয়েছে। এমন সংবাদ পেয়ে রাজনগর থানার এস আই বিনয় ভূষণ চক্রবর্তীসহ একদল পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে গেদন মিয়ার দোকানে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৯০ হাজার টাকার বান্ডিলে থাকা জাল নোট ও পলিথিনে মোড়ানো পুতলায় ২০ পিছ ইয়াবা উদ্ধার করে।  পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দোকান মালিক গেদন মিয়া ও তার ভাই পারভেজ মিয়াকে থানায় নিয়ে আসেন, পরে গেদন মিয়ার ভাই পারভেজ মিয়া কে ছেড়ে দিলেও গেদন মিয়া কে ছাড়ে নি পুলিশ।
এ সময় বক্তারা  বিষয়টি সুষ্ঠ তদন্ত করে,  ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবী জানান।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *