দূর্নীতির সংবাদ প্রচার করায় চেয়ারম্যানের ছেলের হাতে সাগর নির্যাতিত। আইসিটি নিউজ

অপরাধ ও দুর্নীতি রাজনীতি

আইসিটি নিউজ: লালমোহন প্রতিনিধি : ভোলার বোরহানউদ্দিনে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ উপলক্ষে জেলেদের জন্য বরাদ্দের ত্রাণ নিয়ে অনিয়মের সংবাদ করায় সাংবাদিক সাগরকে ছিনতাইকারী বলে মারধর করেছে ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে ছাত্রলীগ নেতা নাবিল।
মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে সাংবাদিক সাগরকে ডেকে নিয়ে প্রকাশ্যে বাজারের মধ্যে নির্যাতন পূর্বক ভিডিও চিত্র ধারণ করে নির্যাতনকারী।
সাংবাদিক সাগর চৌধুরী বলেন, উপজেলার বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হায়দার স্থানীয় জেলেদের ১ মণ করে চাল দেওয়ার কথা থাকলেও চাল দেওয়া হচ্ছিল মাত্র ১৪-১৫ কেজি করে। এমন অনিয়মের বিষয়টা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানাই এবং চেয়ারম্যানের কাছে জানতে চাই কেন চাল কম দিচ্ছেন? এরই জের ধরে তার ছেলে ঢাকা ইউনিভার্সিটির ছাত্র নাবিল আমাকে মারধর করেন।
সাগর চৌধুরী আরও বলেন, এরপর ছাত্রলীগ কর্মী নাবিল আমাকে ভিপি নুরের হত্যার হুমকির ভিডিও দেখিয়ে বলে, আমি ভিপি নুরকে গুনিনা, আর তুমি তো কোথাকার সাংবাদিক। একথা বলতে বলতে আমাকে প্রচন্ড রকম মারধর করে এবং মোবাইল ছিনতাইকারী হিসেবে অপবাদ দেয়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোরহানউদ্দিনের এক সাংবাদিক নেতা বলেন, চেয়ারম্যান জসিম হায়দারের বিরুদ্দে নিউজ করায় এই নির্যাতন করা হয়েছে। এমনকি নির্যাতনের পর সাংবাদিক সাগর বোরহানউদ্দিন থানায় অভিযোগ দিতে যাওয়ার সময় জসিম হায়দারের লোকজন তাকে থানায় এবং বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে যেতে দেননি। পরবর্তিতে তিনি ভোলা সদর হাসপাতালে এসে ভর্তি হন।
এদিকে সাগর চৌধুরীর ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ অনলাইন প্রেসক্লাবসহ অন্যান্য সাংবাদিক সংগঠন। এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার মূলহোতা নাবিলকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তারা।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *