অপরাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে: ভিপি নুরুল। আইসিটিনিউজ বিডি২৪

অপরাধ ও দুর্নীতি রাজনীতি

আইসিটিনিউজ বিডি২৪: নিজস্ব প্রতিবেদন:

‘জাতীয় স্বার্থবিরোধী সকল অসম চুক্তি বাতিল ও সারা দেশে ছাত্রলীগের সন্ত্রাস–নির্যাতনের বিরুদ্ধে সংহতি সমাবেশ ও গণপদযাত্রা’ করেছে ছাত্রসংগঠনগুলো। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে থেকে বাম ছাত্রসংগঠনের সমন্বয়ে এই পদযাত্রা শুরু হয়।

পদযাত্রায় অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক। তিনি বলেন, যখনই আবরার হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনা ঘটে, তখনই সরকার তাৎক্ষণিক কিছু ব্যবস্থা নেয়, যাতে আন্দোলন ব্যাপক না হয়। এসব লোকদেখানো ব্যবস্থা। এসব দেখিয়ে আন্দোলন থামানো যাবে না। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি মায়ের মতো হয়ে বিচার করবেন, এগুলো কথার ফুলঝুড়ি। ছাত্ররা রাজপথে থাকলে প্রশাসনের টনক নড়ে। ছাত্ররা রাজপথ ছেড়ে দিলে তাঁরা আবার আগের মতো হয়ে যাবে।

এ সময় আবরার হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ছাত্রলীগের র‍্যালির বিষয়ে নুরুল হক বলেন, ‘যারা আবরারকে হত্যা করেছে, তারা আজ শোক র‍্যালি বের করেছে, এটা হাস্যকর। এটা এক ধরনের প্রচ্ছন্ন হুমকি। আমরা হুমকি-ধমকিকে ভয় পাই না। দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে আবরার হত্যার বিচার করতে হবে। ছাত্র রাজনীতি খারাপ নয়। অপরাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে, ছাত্র রাজনীতি নয়। সব ক্যাম্পাসে ছাত্র সংসদ নির্বাচন দিতে হবে।

‘জাতীয় স্বার্থবিরোধী সকল অসম চুক্তি বাতিল ও সারা দেশে ছাত্রলীগের সন্ত্রাস–নির্যাতনের বিরুদ্ধে সংহতি সমাবেশ ও গণপদযাত্রা’ করেছে ছাত্রসংগঠনগুলো। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে থেকে বাম ছাত্রসংগঠনের সমন্বয়ে এই পদযাত্রা শুরু হয়।

পদযাত্রায় অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক। তিনি বলেন, যখনই আবরার হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনা ঘটে, তখনই সরকার তাৎক্ষণিক কিছু ব্যবস্থা নেয়, যাতে আন্দোলন ব্যাপক না হয়। এসব লোকদেখানো ব্যবস্থা। এসব দেখিয়ে আন্দোলন থামানো যাবে না। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি মায়ের মতো হয়ে বিচার করবেন, এগুলো কথার ফুলঝুড়ি। ছাত্ররা রাজপথে থাকলে প্রশাসনের টনক নড়ে। ছাত্ররা রাজপথ ছেড়ে দিলে তাঁরা আবার আগের মতো হয়ে যাবে।

এ সময় আবরার হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ছাত্রলীগের র‍্যালির বিষয়ে নুরুল হক বলেন, ‘যারা আবরারকে হত্যা করেছে, তারা আজ শোক র‍্যালি বের করেছে, এটা হাস্যকর। এটা এক ধরনের প্রচ্ছন্ন হুমকি। আমরা হুমকি-ধমকিকে ভয় পাই না। দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে আবরার হত্যার বিচার করতে হবে। ছাত্র রাজনীতি খারাপ নয়। অপরাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে, ছাত্র রাজনীতি নয়। সব ক্যাম্পাসে ছাত্র সংসদ নির্বাচন দিতে হবে।

নুরুল হক বলেন, ‘আবরারের রক্ত ঝরানো অসম চুক্তি আমরা বাস্তবায়ন হতে দেব না।’

গত রোববার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরার ফাহাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জানা যায়, ওই রাতেই হলটির ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা। ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন, তাঁর মরদেহে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ। ইতিমধ্যে ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

 

সূত্র:  প্রথম আলো।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *